ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ করোনা আক্রান্ত, হাসপাতালে ভর্তি

আন্তর্জাতিক ডেক্সঃ  করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। দেশটিতে এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৭ লাখের বেশি মানুষ। করোনা শনাক্ত হওয়ার পর রোববার (০২ আগস্ট) বিকেলে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন তিনি।

দিল্লির পার্শ্ববর্তী হারিয়ানার গুরুগ্রামের মেদান্তা হাসপাতালে তিনি চিকিৎসা নিচ্ছেন বলেও জানা গেছে।
এর আগে এক টুইটে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ জানান, ‘তার শারীরিক অবস্থা ভালো। চিকিৎসকের পরামর্শে তিনি হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন।’
ভারতে করোনা সংক্রমণ বাড়ছে অকল্পনীয় হারে। বর্তমানে আক্রান্ত ছাড়িয়েছে ১৭ লাখ। গেল দু’দিনে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ মানুষ।
গেল কয়েকদিন আগে মন্ত্রিসভায় বৈঠক করেন ৫৫ বছর বয়সী অমিত শাহ। সূত্র জানায়, যারা অমিত শাহের সংস্পর্শে এসেছেন তাদের করোনা পরীক্ষা করার প্রক্রিয়া চলছে। যারাই তার সংস্পর্শে এসেছেন তাদের সেলফ আইসোলেশনে পাঠানো হবে।’
অমিত শাহ টুইটে বলেন, প্রাথমিক উপসর্গ দেখা যাওয়ার পরই আমি নমুনা পরীক্ষা করাই। পরীক্ষার ফল করোনা পজেটিভ এসেছে। আমার স্বাস্থ্য ভালো আছে। তারপরও চিকিৎসকের পরামর্শে হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছি। আমি অনুরোধ করছি, গেল কয়েকদিনে আমার সংস্পর্শে যারা এসেছেন, দয়া করে সবাই আইসোলেশনে থাকুক। নিজেদের নমুনা পরীক্ষা নিশ্চিত করুন।’
রোববার সকালে করোনায় মারা গেছেন উত্তর প্রদেশ সরকারের মন্ত্রী কমল রানী ভারুন। ৬২ বছর বয়সে ওই নারী লক্ষ্ণৌ সঞ্জয় গান্ধী পোস্ট গ্রাজুয়েট ইনস্টিটিউট মেডিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।
গেলো সপ্তাহে মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিভরাজ সিং করোনায় আক্রান্ত হন। নয়দিন ধরে তিনি হাসপাতালে ভর্তি। রোববার সকালে এক টুইট বার্তায়, নিজের শারীরিক অবস্থা ভালো বলে জানিয়েছেন তিনি।
তামিল নাড়ুর গভর্নর বানওয়ারিলাল পুরোহিতও করোনায় আক্রান্ত। চেন্নাই কাউভেরি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন তিনি। তার শরীরে করোনার কোনো উপসর্গ ছিল না। সন্দেহভাজন হিসেবে পরীক্ষার পর তার দেহে করোনা ভাইরাস ধরা পরে। তার শারীরিক অবস্থা বর্তমানে স্থিতিশীল বলে জানায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।
দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানায়, গেলো ২৪ ঘণ্টায় ৫৪ হাজার ৭শ’ ৩৫ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৭ লাখ ৫০ হাজার ৭শ’ ২৩ জনে।
বিধিনিষেধ শিথিল করে আনলক-থ্রি জারির পরই দেশটিতে করোনা সংক্রমণ বেড়ে যায়। যদিও সরকার এখনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সিনেমা হল, পানশালা, ব্যায়ামাগার খুলেনি। রাজ্য সরকারগুলো করোনা মোকাবিলায় বিভিন্ন পদক্ষেপ বাস্তবায়ন করছে।
১৮৫ দিনে ভারতে করোনায় আক্রান্ত ছাড়ায় ১৭ লাখ। জানুয়ারিতে কেরালায় প্রথম করোনা আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত হয়। প্রথম ১শ’ ১০ দিনে আক্রান্ত হয় ১ লাখ। জুলাইতে আক্রান্ত হয়েছে মোট আক্রান্তের ৬০ শতাংশ।  মোট মারা যাওয়াদের অর্ধেক মারা গেছেন জুলাই মাসেই।
Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *