শেষ পর্যন্ত বঙ্গবন্ধুর খুনি মাজেদের দাফন শ্বশুর বাড়িতে হলো

বিএনডেক্সঃ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মস্বীকৃত খুনি ক্যাপ্টেন (বরখাস্ত) আবদুল মাজেদকে নারায়ণগঞ্জে তার শ্বশুরবাড়িতে দাফন করা হয়েছে। শনিবার রাত ১২টা ১ মিনিটে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে তার ফাঁসি কার্যকর করা হয়।

রোববার ভোর ৫টার দিকে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার শম্ভপুর ইউনিয়নের হোসেনপুর গ্রামে শ্বশুরবাড়িতে মাজেদের মরদেহ দাফন করা হয়। মাজেদের স্ত্রী সালেয়া বেগমের এক চাচা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।এছাড়াও ভোলার বোরহানউদ্দিন থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. এনামুল হক সোনারগাঁ থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) মো. আজিজের বরাত দিয়ে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

মাজেদের জন্মস্থান ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার উত্তর বাটামারা গ্রামে তার দাফনের কথা উঠলে ভোলা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলী আজম মুকুলের নির্দেশে শনিবার রাত সাড়ে ৮টা থেকে সেখানে অবস্থান নেন উপজেলা ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীরা। বঙ্গবুন্ধুর আত্মস্বীকৃত খুনি মাজেদের মরদেহ কোনোভাবেই ভোলায় দাফন করতে দেয়া হবে না বলে তারা ঘোষণা দেন।

দীর্ঘ দেড় যুগের বেশি সময় ভারতে পালিয়ে থাকা বঙ্গবন্ধুর এই আত্মস্বীকৃত খুনি মঙ্গলবার মিরপুর সাড়ে ১১ থেকে গ্রেপ্তার করে ডিএমপির কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইমের (সিটিটিসি) একটি দল। গত মাসে দেশে ফিরে মাজেদ স্ত্রীর ক্যান্টনমেন্ট আবাসিক এলাকার এক নম্বর রোডের ১০/এ বাড়িতে বসবাস করছিলেন। পরদিন বুধবার দুপুরে আদালতের নির্দেশে কারা কর্তৃপক্ষ আসামিকে ঢাকার জেলা ও দায়রা জজ হেলাল চৌধুরীর আদালতে হাজির করেন। এরপর রাষ্ট্রপক্ষের প্রসিকিউটররা আসামি গ্রেপ্তার দেখানোসহ আসামির বিরুদ্ধে মৃত্যু পরোয়ানা জারি করার আবেদন করেন। শুনানি শেষে আদালত আসামি আব্দুল মাজেদকে গ্রেপ্তারসহ মৃত্যু পরোয়ানার আবেদন মঞ্জুর করেন। একই দিন সন্ধ্যায় কারা কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণ ভিক্ষার আবেদন করেন আব্দুল মাজেদ। রাষ্ট্রপতি সেই আবেদন খারিজ করেন।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *