হাতিয়ায় নিবন্ধনবিহীন ক্লিনিক ও ল্যাবে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান ৪টি প্রতিষ্ঠানকে ৫৫ হাজার টাকা জরিমানা।

উত্তম সাহাঃ  নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেকস সংলগ্ন উত্তর পাশে অভিযান চালিয়ে নিবন্ধনবিহীন ক্লিনিক ও ল্যাবে প্রত্যয়নহীন সেবার মূল্য প্রদর্শন, ল্যাবে এক্সরে কক্ষে সুরক্ষিত দরজা না থাকা সহ বিভিন্ন অপরাধে ৪ টি মামলায় ৩টি ডায়াগনিষ্টিক ল্যাব ও ১টি ঔষধের দোকানে ৫৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন। ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্টেট ও সহকারী কমিশনার(ভূমি) মোহাম্মদ শাহজাহান।
মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর ৫২ ধারায় ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্টেট সহকারি কমিশনার (ভুমি) মোহাম্মদ শাহজাহান এ অভিযান চালায় ।
এ সময় হাতিয়া ডক্টরস ল্যাবকে ৩০ হাজার টাকা এবং সঠিক কাগজ পত্র না থাকায় হাতিয়া ডিজিটাল ল্যাবরেটরীকে ৭ দিন সময় ও ১০ হাজার টাকা, মেয়াদ উত্তীর্ণ মেডিসিন রাখায় হাতিয়া কম্পিউটারাইজড ল্যাবকে ১০ হাজার টাকা এবং নজিবা মেডিকেল হলকে ড্রাগের কাগজ পত্র না দেখাতে পারায় ৫ হাজার টাকা সহ মোট ৫৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। অভিযান চলাকালীন সময় উপস্থিত ছিলেন মেডিকেল অফিসার ডাঃ মাহতাব উদ্দিন হাতিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেকস। এ ছাড়া ও ভ্রাম্যমান আদালত চলাকালে হাতিয়া থানা পুলিশ সদস্য ও আনসার সদস্যরা সহযোগিতা করেন।
ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্টেট সহকারি কমিশনার (ভুমি) মোহাম্মদ শাহজাহান বলেন,সঠিক কাগজ পত্র ছাড়া কোন ডায়াগনিষ্টিক সেন্টার বা ল্যাব চলতে পারে না। লাইসেন্স ছাড়া ফার্মেসী খোলা যাবে না। তিনি আর ও বলেন, এমবিবিএস পাস না করে কোন ভাবে প্রেসক্রিপশনে ডাক্তার লেখা যাবে না। মেয়াদ বিহীন কোন ঔষধ দোকানে রাখা দন্ডনীয় অপরাধ। জনস্বার্থে আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *